বিদেশের খবর

বিদেশের খবর আমার কুষ্টিয়া হতে প্রকাশিত

পাকিস্তানে চলন্ত ট্রেনে বোমা বিস্ফোরণ: নিহত ৪, আহত ১০

 পাকিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে রবিবার চলন্ত একটি ট্রেনে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪ জন নিহত এবং প্রায় ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ব্যাপারে দেশটির পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ জামালি জানিয়েছেন, রবিবার কোয়েত্তাগামী ট্রেনের একটি বগিতে বোমা বিস্ফোরিত হয়। এতে এক কিশোরী ও এক নারীসহ চারজন নিহত হন। আহত হন শিশু ও নারীসহ প্রায় ১০জন। বিস্ফোরণের ঘটনায় ট্রেনটির ছয়টি বগি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এদিকে, এখন পর্যন্ত কেউ এ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি।

মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন কঠোর করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন কঠোর করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড। সোমবার মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডার্ন অস্ত্র আইন সংস্কারের প্রস্তাব উত্থাপন করলে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা তাতে সমর্থন জানান। এদিকে, নিউজিল্যান্ড পুলিশকে সহযোগিতার অংশ হিসেবে হামলাকারী ব্রেন্টন ট্যারেন্টের অস্ট্রেলিয়ার বাসায় তল্লাশি চালিয়েছে অস্ট্রেলিয়ান। ওই হামলাকারী ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থক বলে অভিযোগ উঠলেও তা অস্বীকার করেছে হোয়াইট হাউস।

বাজছে গিটার, গিটারের এই সুর বিষাদের, আর্ত্মনাদের। অস্রুসিক্ত নয়নের। ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের স্মরণে গিটার বাজিয়ে জানাচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের নানা ধর্ম-বর্ণের মানুষ। গেল শুক্রবারের ওই হামলায় নিহত ৫০ জনের মধ্যে ৫ বাংলাদেশি ছাড়াও ৫ ভারতীয় এবং ৯ পাকিস্তাসহ বিভিন্ন দেশের নাগরিক রয়েছে।

বর্বর ওই হামলার পর মুসলিম কমিউনিটির প্রতি সমবেদনা জানাতে নিউজিল্যান্ডের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ছুটে আসছেন সাধারণ মানুষ। সোমবার নিহতদের স্মরণে শোকসভায় অংশ নেন বিভিন্ন শেণী পেশার মানুষ। দ্রুত অস্ত্র আইন সংস্কারের দাবি জানান বক্তারা।

একইদিন মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের নিয়ে জরুরি বৈঠকে করেন প্রধানমন্ত্রী বৈঠক ডাকেন জাসিন্ডা আরডার্ন। পরে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন পরিবর্তনে বিষয়ের সমর্থন জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন বলেন, ‘ক্রাইস্টচার্চের হামলায় আক্রান্তদের সব ধরনের সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে পুলিশ। দেশটি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায় শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত হামলায় আক্রান্তদের সহযোগিতা করে যাবে নিউজিল্যান্ড সরকার।’

এমন পরিস্থিতির মধ্যেই হামলাকারী ব্রেন্টন ট্যারেন্টের অস্ট্রেলিয়ার বাসায় তল্লাশি চালিয়েছে সেদেশের পুলিশ। নিউজিল্যান্ডের নিরাপত্তা বাহিনীকে সহযোগিতা অংশ হিসেবে সন্দেহজনক কোনো জিনিস বা কোনো আলামত রয়েছে কিনা তার খোঁজেই এ তল্লাশি অভিযান বলে জানায় অস্ট্রেলিয়া।

নিউজিল্যান্ডের পুলিশ বলছে, ব্রেন্টন ট্যারেন্ট একই হামলায় অংশ নিলেও তাকে সহযোগিতার আর কয়েকজন জড়িত থাকতে পারে। এরমধ্যেই আদালতের নিয়োগ দেয়া নিজের আইনজীবীকে বরখাস্ত করেছেন হামলাকারী।

গেল শুক্রবার মুসলিম কমিউনিটির ওপর বর্বর সন্ত্রাসী হামলার দুঃসহ স্মৃতি তাড়িয়ে বেড়ালেও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার চেষ্টা করছেন নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের বাসিন্দারা। বিশ্বের সবচেয়ে শান্তির দেশ হিসেবে পরিচিত নিউজিল্যান্ডে স্বস্তি হয়তো ফিরবে, কিন্তু সবুজে ঘেরা এ দ্বীপটির মানুষের মনে এই ক্ষত যে গভীর দাগ কেটেছে তা হয়তো থেকেই যাবে।

আবারও নেদারল্যান্ডসে বন্দুক হামলা, হতাহতের আশঙ্কা

 নেদারল্যান্ডসের মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশের রাজধানী ইউট্রেখটে একটি ট্রামে বন্দুক হামলা হয়েছে। বন্দুকধারীর গুলিতে প্রাথমিকভাবে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। বেশকিছু গণমাধ্যম বলছে, গুলিতে আহত কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সোমবার স্থানীয় সময় বেলা পৌনে ১১টায় এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে বলে দেশটির পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ইউট্রেখটের পুলিশ বলছে, ‘সিটি সেন্টারের পাশে অবস্থিত শহরের একটি ট্রাম স্টেশনের কাছে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পুলিশের জরুরি সেবা বিভাগের সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে গোলাগুলির স্থানটি ঘিরে রেখেছেন। এছাড়া ঘটনাস্থলে অ্যাম্বুলেন্সের পাশাপাশি এয়ার অ্যাম্বুলেন্সও দেখা গেছে বলে রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি জানিয়েছে।

দেশটির পুলিশের মুখপাত্র জুস্ট ল্যানশ্যাগে বলেছেন, একটি ট্রামে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থলে হেলিকপ্টার পাঠানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

ঘটনাস্থল এড়িয়ে চলাচলের জন্য স্থানীয়দের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে পুলিশ। প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি বলছে, তিনি একজন নারীকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেছেন। ঘটনাস্থল থেকে অনেক মানুষকে দৌড়ে পালাতে দেখেছেন তিনি।

পুলিশের বরাত দিয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আহতদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য ঘটনাস্থলে হেলিকপ্টার পাঠানো হয়েছে। তবে এর বেশিকিছু জানাতে পারেনি তারা। সিটি সেন্টারের পাশে ২৪ অকটোবারপ্লেইন জংশনে এ হামলার পেছনে সন্ত্রাসী উদ্দেশ্য রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ডাচ প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে বলেছেন, ‌ট্রাম স্টেশেন হামলার পর সংকটকালীন জরুরি বৈঠকে বসেছে সরকার। ইউট্রেখটের পরিবহন কর্তৃপক্ষ বলছে, শহরের সব ট্রাম সেবা বন্ধ ঘোষণা করেছে তারা।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী দেশটির স্থানীয় নিউজ আউটলেট এনইউ.এনএলকে বলেন, ‘একজন বন্দুকধারী আচমকা এলোপাতাড়ি গুলি করা শুরু করে। তবে এডি.এনএল নামের দেশটির আরকেটি সংবাদমাধ্যমে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে, চারজন বন্দুকধারী ট্রাম স্টেশনের পাশে একটি নারীর ওপর অতর্কিতে বন্দুক হামলা শুরু করে।

নিউজিল্যান্ডে ব্রেন্টন ট্যারান্ট নামের এক উগ্রবাদী শ্বেতাঙ্গর হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই ইউরোপের শান্তিপূর্ণ এই দেশটিতে গোলাগুলির ঘটনা ঘটলো। তবে গোলাগুলিতে ঠিক কতজন আহত হয়েছে সে সম্পর্কে এখনো পরিষ্কার কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলায় শহীদ হওয়া ৩২ জনের ছবি প্রকাশ

 সন্ত্রাসবাদী ব্রেনটন টেরেন্ট কর্তৃক নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলায় শহীদ হওয়া অর্ধশতাধিক মুসল্লির মধ্য থেকে ৩২ জনের ছবি প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ।

নতুন করে প্রকাশ করা তথ্যে বলা হয়, খ্রিষ্টান সন্ত্রাসবাদীর হামলায় শহীদদের মধ্যে শিশুসহ শিক্ষার্থী, পাইলট, প্রকৌশলী এবং স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রয়েছেন। শহীদদ হওয়া ওজাইর কাদির নামের শিক্ষার্থী পাইলট নিউজিল্যান্ডের ইন্টারন্যাশনাল এভিয়েশন একাডেমিতে পড়ালেখা করতেন।

এর আগে বলা হয়েছে, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়ে শহীদদ হন আতা এলায়েন নামে এক ফুটবলার। ৩৩ বছর বয়সী এলায়েন ছিলেন নিউজিল্যান্ডের জাতীয় ফুটসাল (ইনডোর ফুটবল) দলের সদস্য। তিনি বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের খেলায় গোলকিপারের দায়িত্ব পালন করেছেন।

এদিকে শহীদদের  লাশ শনাক্তে দ্রুততার সঙ্গে কাজ করছে কর্তৃপক্ষ।

রবিবার নিউজিল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট জাসিন্ডা আরডার্ন জানান, শনাক্ত হওয়া লাশগুলো তাদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। বুধবারের মধ্যে সব লাশ সংশ্লিষ্ট পরিবারগুলোর কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বিশ্বব্যাপী প্রশংসায় ভাসছে সেই সাহসী কিশোর উইল-কনোলি

অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্র্যাসার অ্যানিংয়ের মাথায় ডিম ফাটিয়ে ব্যাপক প্রশংসায় ভাসছেন সেই কিশোর উইল-কনোলি।

সেইসঙ্গে ওই কিশোরকে হামলা ও তাকে নোংরা কথা বলার জন্যে সিনেটর ফ্র্যাসারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের ও বহিষ্কারের দাবি তুলছে অস্ট্রেলিয়ার জনগণ। এছাড়া আরও ডিম কেনার জন্য তহবিল গঠন করা হয়েছে।

বার্তা সংস্থা নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফ্র্যাসার অ্যানিংয়কে বহিষ্কারের দাবিতে চার্জডটঅর্গের মাধ্যমে অন্তত ৫ লাখ ব্যক্তি আবেদন করেছেন।

এছাড়া ফ্র্যাসার অ্যানিংয়ের কঠোর সমালোচনা করছেন দেশটির অনেক রাজনৈতিক নেতা। সমালোচনা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনও।

কিশোরকে মারধর করায় ওই সিনেটরের সমর্থকদের নিষ্ঠুর বলে অভিহিত করেছেন দেশটির জনগণ। সেইসঙ্গে ওই কিশোরকে দিচ্ছেন হিরোর তকমা।

অস্ট্রেলিয়ার একজন সিনেটর ডেরিন হিঞ্চ টুইটার বার্তায় জানান, অ্যানিংয়ের প্রতিক্রিয়া ছিল প্রবৃত্তিগতভাবে। কিন্তু, তার গুণ্ডাদের প্রতিক্রিয়া ছিলো মাত্রাতিরিক্ত।

ওই কিশোরের পক্ষে আইনি লড়াই ও আরো ডিম কেনার জন্য অর্থ সংগ্রহ করতে শুরু করেছে একটি তহবিল সংগ্রহকারী সংস্থা।

জানা যায়, গত ১৭ ঘণ্টায় ‘গোফান্ডমি’ প্রচারণার মাধ্যমে সংস্থাটি ১৪ হাজার মার্কিন ডলার সংগ্রহ করেছে।

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা হয় গত শুক্রবার। এতে অর্ধশতাধিক মুসলিম শহীদ হয়েছেন। খ্রিষ্টান সন্ত্রাসবাদীর ওই হামলার দায় মুসলিম অভিবাসীদের উপর চাপিয়ে বিতর্ক উসকে দেন অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং। এর প্রতিবাদ জানিয়ে সিনেটরের মাথায় ডিম ভেঙে দেন এক তরুণ।

শনিবার মেলবোর্নের মোরাবিনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনা ঘটে। সিনেটরের ডিম ভাঙার সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এরপর থেকে বিশ্বব্যাপী ব্যাপক প্রশংসায় ভাসছেন ওই সাহসী কিশোর।

চলে গেলেন ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসীকে প্রতিরোধকারী রশিদ

অনেক চেষ্টার পরও বাঁচানো যায়নি নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলা করা খ্রিষ্টান সন্ত্রাসীকে প্রতিরোধকারী নাঈম রশিদকে। ওই হামলায় নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫০ জনে। এই সংখ্যা আরও অনেক বাড়তে পারত কিন্তু সেসময়ে অসম সাহস দেখিয়ে হামলাকারীকে জড়িয়ে ধরে রাখেন রশিদ। তার চাপে পড়েই হাত থেকে অস্ত্র ফেলে দেন ব্রেন্টন টারান্ট নামের ওই সন্ত্রাসী। খবর বিবিসির।

ঘটনার পর হামলার প্রত্যক্ষদর্শী ভারতীয় বংশোদ্ভূত ফয়জল সৈয়দ জানিয়েছিলেন, কীভাবে মসজিদে গুলিবৃষ্টির মধ্যেই ‘জনৈক ব্যক্তি’ ছুটে এসে সন্ত্রাসীকে জাপটে ধরেন। বন্দুক না নামানো অবধি চেপে ধরে রাখেন। ফয়জল বলেন, তিনি যে বেঁচে গিয়েছেন তা ওই মানুষটির জন্যই। তাকে খুঁজে পেতে চান তিনি।

পাকিস্তানের অ্যাবটাবাদ থেকে আসা নাঈম রশিদ তিনি ক্রাইস্টচার্চের একজন শিক্ষক ছিলেন। আল নুর মসজিদে হামলার ভিডিওতে একটি অংশে দেখা গেছে আল-নুর মসজিদে গুলিবিদ্ধ হবার আগে নাঈম রশিদ হামলাকারীকে বাধা দেবার চেষ্টা করেন। তিনি গুরুতরভাবে আহত হয়েছিলেন। হাসপাতালে নেয়া হলে তার মৃত্যু হয়। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

রশিদকে সবাই বীর হিসেবে দেখছেন। তার ভাই খুরশিদ রশিদ জানিয়েছেন ভিডিওটি দেখার পর তার সাহসী ভূমিকার জন্য তারা গর্বিত। ‘তিনি ছিলেন একজন সাহসী ব্যক্তি এবং আমি সেখানকার লোকজনের কাছে শুনেছি, সেখানে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীদের কয়েকজন বলেছেন যে তিনি সেই হামলাকারীকে থামানোর চেষ্টা করে কয়েকজনের জীবন বাঁচিয়েছিলেন।’ পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে তাকে পাকিস্তানের নয়, ক্রাইস্টচার্চে সমাধিস্থ করা হবে।

এ ঘটনায় নিহত হয়েছেন রশিদের ২১ বছর বয়সি ছেলে তালহা। তালহা সম্প্রতি নতুন একটি চাকরি পেয়েছিলেন এবং শিগগিরই তার বিয়ে করার কথা ছিল।

নিউজিল্যান্ডে মসিজদে হামলার পর এবার বোমা আতঙ্ক, বিমানবন্দর বন্ধ !

মসিজদে প্রাণঘাতী হামলায় রক্তের দাগ না শুকাতেই নিউজিল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলের ওটাগোর দুনেদিন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বোমা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। রোববার সেখানে বোমা সদৃশ একটি প্যাকেটের সন্ধান পাওয়ার পর নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা বিমানবন্দর বন্ধ করে দিয়েছে।

দেশটির ইংরেজি দৈনিক ওটাগো ডেইলি টাইমস এক প্রতিবেদনে বলছে, স্থানীয় সময় রাত ৯টা ৫৫ মিনিটের দিকে এক বিবৃতিতে দুনেদিন বিমানবন্দরে বোমা সদৃশ প্যাকেট পাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

সন্দেহজনক প্যাকেটের সন্ধান পাওয়ার পর বিমানবন্দর বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। ‘প্যাকেটের ধরন সনাক্ত করার জন্য বিমানবন্দরে পুলিশ এবং বিষেশজ্ঞ টিম পাঠানো হয়েছে।’

এর আগে দেশটির পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, বিমানবন্দর এলাকায় যান চলাচলে সড়ক বিভাজন তৈরি করা হয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার রাত ৮টা ১০ মিনিটে ওই প্যাকেটের খবর আসে পুলিশের কাছে। এ ঘটনার পর দেশটির প্রতিরক্ষা বাহিনীকে সতর্ক অবস্থানে রাখা হয়েছে।

তবে বিমানবন্দরে বোমা সদৃশ প্যাকেট পাওয়ার ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। একটি সূত্র ওটাগো ডেইলি টাইমসকে বলছে, বিমানবন্দরের একটি ভবনের পাশে সন্দেহজনক ব্যাগ দেখা গেছে। ঘটনাস্থলে বোমা নিস্ক্রিয়করণ ইউনিটের সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে, গত শুক্রবার জুমআর নামাজের সময় দেশটির ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত এক শেতাঙ্গ সন্ত্রাসী বন্দুক হামলা চালায়। এতে ৫০ জনের প্রাণহানি ঘটে।

এছাড়া আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে আরো অন্তত ৪৯ জন। রক্তাক্ত এই হত্যাযজ্ঞের রেশ কাটতে না কাটতেই বিমানবন্দরে নতুন করে বোমাতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

এবার নিউজিল্যান্ডের একটি হাসপাতালে হামলার হুমকি !

ইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলা করে ৪৯জনকে হত্যার পর এবার নিউজিল্যান্ডের একটি হাসপাতালে একই ধরণের সন্ত্রাসী হামলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। 

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, দেশটির হ্যাংন্সটিংস শহরের `হকস বে’ হাসপাতালের হামলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। 

হুমকির পরে অবরুদ্ধ অবস্থায় রয়েছেন সেখানকার রোগী ও হাসপাতালের চিকিৎসকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

এঘটনার পর হাসপাতালের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদে স্থানীয় সময় বেলা দেড়টার দিকে জুমার নামাজ আদায়রত মুসল্লিদের ওপর স্বয়ংক্রিয় রাইফেল নিয়ে হামলা চালান ব্রেনটন। অল্পের জন্য ওই হামলা থেকে বেঁচে যান বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা। কাছাকাছি লিনউড মসজিদে দ্বিতীয় দফায় হামলা চালানো হয়। দুই মসজিদে হামলায় নিহত ৪৯ জন। এর মধ্যে আল নুর মসজিদে ৪১ জন ও লিনউড মসজিদে সাতজন নিহত হন। 

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে ভয়াবহ হামলাকারীকে আদালতে হাজির

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে বর্বরোচিত হামলার সন্দেহভাজন মূলহোতা অস্ট্রেলিয়ান বংশোদ্ভূত ব্রেন্টন ট্যারেন্টের (২৮) বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দিয়ে আদালতে হাজির করা হয়েছে।

শনিবার (১৬ মার্চ) স্থানীয় সময় সকালে তাকে কারাগারের সাদা শার্ট এবং হাতকড়া পরিয়ে আদালতে হাজির করা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইন লঙ্ঘনসহ আরও বেশ কয়েকটি অভিযোগ আনা হবে বলে ধারণা করছেন আইনপ্রণেতারা এর আগে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডেন বলেন, এই হামলা ছিল একটি উগ্র-সন্ত্রাসবাদী হামলা এবং প্রধান সন্দেহভাজন হামলাকারীর আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স ছিল।

জাসিন্ডা আর্ডেন আরও জানান, ওই ব্যক্তি ছাড়া আরও দুজন পুলিশের হেফাজতে আটক আছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী আরডান জানিয়েছেন যে, আটকদের কারো বিরুদ্ধে কোন অতীত অপরাধের রেকর্ড নেই।শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে জুম্মার নামাজরত শতশত মুসুল্লির ওপর ওই হামলা চালায় সশস্ত্র বন্দুকধারী। ওই হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪৮ জন। নিহতদের পরিচয় এখনো প্রকাশ করেনি কর্তৃপক্ষ। তবে বাংলাদেশ, ভারত ও ইন্দোনেশিয়া জানিয়েছে যে, নিহতদের মধ্যে তাদের নাগরিকরাও রয়েছেন।

হামলার পর থেকেই ক্রাইস্টচার্চে ব্যাপক নিরাপত্তা বিরাজ করছে এবং পুরো দেশজুড়ে সকল মসজিদ বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা বলেছেন, মসজিদের হামলার এ ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ব্যক্তির পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্র এবং একটি লাইসেন্স ছিল। হামলার ঘটনার একদিন পর তিনি জানিয়েছেন, দেশের অস্ত্র আইন বদলানো হবেপুলিশ জানিয়েছে, তারা হামলার শিকার দুটো মসজিদ থেকেই গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে এবং সন্দেহভাজন একজনের গাড়ির ভেতর বিধ্বংসী ডিভাইস পাওয়া গেছে।

জাসিন্দা আর্ডান সাংবাদিকদের বলেন, হামলাকারীর বন্দুকের লাইসেন্স ছিল এবং সেটি ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে নেয়া হয়েছে। ওই ব্যক্তি বলেছে সে, ২০১৭ সালে ইউরোপ ভ্রমণের পর থেকে এই হামলার পরিকল্পনা করছিল।মাথায় স্থাপন করা ক্যামেরা দিয়ে পুরো হামলার ঘটনা সরাসরি ইন্টারনেটে প্রচার করছিল ২৮ বছর বয়সী ওই হামলাকারী। সে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক।

ফুটেজে দেখা যায় সে নারী, পুরুষ ও শিশুদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। বন্দুকধারী এরপর প্রায় ৫ কিলোমিটার গাড়ি চালিয়ে আরেকটি মসজিদে গিয়ে হামলা চালায় বলে খবর পাওয়া গেছে।

এবার লন্ডনে মুসল্লির ওপর হামলা

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার কয়েক ঘণ্টা যেতে না যেতেই লন্ডনে এক মুসল্লির ওপর হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যম জানায়, শুক্রবার পূর্ব লন্ডনের একটি মসজিদে জুম্মার নামাজ শেষে বাসায় ফেরার পথে এক মুসল্লির ওপর হাতুড়ি নিয়ে হামলা চালায় অজ্ঞাত দুই ব্যক্তি। এসময় মসজিদে আসা মুসল্লিদের সন্ত্রাসী বলে চিৎকার করতে থাকে তারা।

এক পর্যায়ে ওই মুসল্লি গাড়িতে করে চলে যেতে থাকলে গাড়ির ওপরও হামলা চালানো হয়। এখন পর্যন্ত হামলাকারীদের পরিচয় জানাতে পারেনি নিরাপত্তা বাহিনী।

উল্লেখ্য, গতকাল নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় প্রায় অর্ধশত প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে; ওই হামলার দায় এখনও কেউ স্বীকার না করলেও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে বেরিয়ে এসেছে তার পরিচয় ও হামলার উদ্দেশ্য।হামলাকারীর করা ভিডিও লাইভে দেখা গেছে, গাড়ির পেছনে রাখা স্বয়ংক্রিয় শটগান ও রাইফেল। এর মধ্যে দুইটি অস্ত্রই হাতে নেন তিনি। সেটা নিয়েই হেঁটে হেঁটে প্রধান ফটক দিয়ে মসজিদ প্রাঙ্গণে ঢোকেন। এসময় মসজিদের ভেতরে প্রবেশ গেটের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন একজন। প্রথমে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। গেটের সামনেই পড়ে যায় লাশ।

এরপর ভেতর ঢুকে নির্বিচারে গুলি চালাতে থাকেন ওই ব্যক্তি। গুলিতে মানুষের লাশ পড়তে থাকে। বাঁচার জন্য আর্তচিৎকার করতে থাকে মানুষ। মারা যাওয়ার আগে গোঙানির আওয়াজ শোনা যায়। গুলি শেষ হয়ে গেলে আবারো গুলি লোড করেন হামলাকারী .শুধু তাই নয়, ওই হামলাকারী ঘুরে ঘুরে লাশের উপরও গুলি চালাতে থাকেন। গাড়ি নিয়ে রাস্তায় উঠে সেখানেও নির্বিচারে গুলি চালান। এমনই এক ভয়ঙ্কর দৃশ্যের অবতারণা হয় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে।বিবিসি জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার বেলা দেড়টার দিকে ক্রাইস্টচার্চে আল নূর নামের মসজিদে এই হামলা হয়। আল নূর ছাড়াও হামলা হয়েছে ক্রাইস্টচার্চের আরেকটি মসজিদেও। এতে সব মিলিয়ে ৪৯ জন নিহত হয়

নিউজিল্যান্ডে ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলাকারীর পরিচয় জানা গেছে

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের আল-নূর মসজিদে হামলাকারী ব্যক্তির পরিচয় জানা গেছে। ২৮ বছর বয়সী ওই হামলাকারীর নাম ব্রেনটন ট্যারেন্ট। হামলাকারী ব্যক্তি ওই হামলার ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভ স্ট্রিম করেন। ক্যান্টারবারি পুলিশ জানিয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ওই ভিডিও ফুটেজ সরিয়ে ফেলতে কাজ করে যাচ্ছেন।

তারা বলছে, ক্রাইস্টচার্চের ওই ঘটনার ভয়াবহ ভিডিও অনলাইনে ঘুরে ফিরছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। আমরা সবাই জোরালোভাবে আবেদন জানাবো তারা যেন ওই লিংক শেয়ার না করেন।খবরে বলা হয়েছে, ব্রেনটন ডিনস অ্যাভিনিউয়ে অবস্থিত আল-নূর মসজিদে গাড়ি চালিয়ে আসেন ওই হামলাকারী। পরে তিনি কাছেই একটি জায়গায় গাড়ি পার্ক করে লাইভ স্ট্রিম শুরু করেন।

এসময় দেখা যায়, তার গাড়ির সামনের সিটে অস্ত্র ও গোলাবারুদ রয়েছে। এরপর তিনি নিজেকে অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত করে মসজিদে প্রবেশ করে এবং মসজিদের দরজায় থাকা এক ব্যক্তিকে গুলি করে।মসজিদে হামলাকারী ব্রেনটনের কাছে অন্তত একটি সেমি-অটো অস্ত্র এবং বেশ কয়েক ক্লিপ গুলি ছিল। কিন্তু মসজিদে ঢোকার পর এলোপাথারি গুলি চালাতে থাকে হামলাকারী। সে থেমে থেমে গুলি চালাতে থাকে। এসময় বেশ কয়েক দফায় সে বন্দুক রিলোড করেন।

এরপর তিনি মসজিদের সামনের দরজা দিয়ে বের হয়ে যান। মসজিদে তিন মিনিট থাকার পর তিনি বের হয়ে যান এবং রাস্তায় গাড়ি চালিয়ে যেতে যেতে এলোমেলোভাবে গুলি চালায়।

উল্লেখ্য, শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে ক্রাইস্টচার্চের আল-নূর মসজিদে হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৭ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে বন্দুকধারীর হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে বন্দুকধারীর হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯-এ দাঁড়িয়েছে। হামলার সময় ওই মসজিদে প্রায় ৩০০ মুসল্লি ছিলেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম। এই হামলায় আরও বেশ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আহতের সঠিক সংখ্যা নিশ্চিত হওয়া না গেলেও গুলিবিদ্ধদের মধ্যে তিনজন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে জানা গেছে। নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।


মসজিদে হামলার ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়েরা। অনুশীলন শেষে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়েছিলেন। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, জুম্মার নামাজের সময় হঠাৎ করে এক ব্যক্তি মসজিদে প্রবেশ করে এবং স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র দিলে গুলি চালাতে শুরু করে। 

একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, আমি দেখলাম লোকটি গুলি চালাচ্ছে। সম্ভবত বহু মানুষ মারা গেছে। পুলিশ তাকে নিরস্ত্র করার চেষ্টা করছে।

সোমালিয়ায় বাজারে বিস্ফোরণ: নিহত ৮

সোমালিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের একটি বাজারে বিস্ফোরণের ঘটনায় প্রাণ গেল ৮ জনের। বুধবার এই ঘটনায় আহতের সংখ্যা প্রায় ৪০ জন। তবে কী কারণে এ বিস্ফোরণের ঘটনায় ঘটেছে, তা নিয়ে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই বাজারে বিস্ফোরণের পরপরই গুলির শব্দ শোনা যায়। কিন্তু কে সেই গুলি চালিয়েছে তা জানা যায়নি।

গ্রেফতার আতঙ্কে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি প্রবাসীরা

মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বৈধ-অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশিরা। প্রতিদিনই তাদের তাড়া করছে ইমিগ্রেশন পুলিশ। বাসা, কারখানায়, শপিংমল এমনকি বন-জঙ্গলেও দিনরাত চলছে সাঁড়াশি অভিযান। এতে আটক হচ্ছেন বৈধ প্রবাসীরাও।  
 
মালয়েশিয়ায় বসবাসের বৈধ কাগজপত্র থাকার পরও প্রতিনিয়ত আটক হচ্ছেন বহু প্রবাসী বাংলাদেশি। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় আউটসোর্সিং কোম্পানির এপ্রুভাল বন্ধ থাকায় নামবিহীন দালালের মাধ্যমে বৈধ হয়ে অন্যত্র কাজের মধ্যেই জেলে যেতে হচ্ছে তাদের। দেশটির আইন অনুযায়ী, যে মালিকের নামে ভিসা করা হয়, সেই মালিক ব্যতীত অন্যত্র কাজ করলে তাদেরকে অবৈধ হিসেবে গণ্য করা হয়। আর তাই চলমান অভিযানে আতঙ্কে ভুগছেন প্রবাসী শ্রমিকরা। পুলিশের চোখ এড়াতে কেউ কেউ রাত যাপন করছেন বন-জঙ্গলে

একজন শ্রমিক বলেন, সাধারণ প্রবাসী যারা আছেন তারা খুবই আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন।

আরেকজন বলেন, এখনি হয়ত একটা এম্বুলেন্সের শব্দ শুনলাম সঙ্গে সঙ্গে ঝাঁপ দিয়ে থালাবাটি ফেলে উঠে গেলাম।
 
এর মধ্যেই অভিযোগ উঠেছে, হাজার হাজার রিঙ্গিত লেভি ফি জমা দিয়েও কাঙ্ক্ষিত ভিসা স্টিকার পাচ্ছেন না শ্রমিকরা।

তবে এ বিষয়ে মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশনে যোগাযোগ করা হলে অভিযোগ অস্বীকার করেন শ্রম কাউন্সিলর।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সিলর জহিরুল ইসলাম বলেন, এদের ভিসা কী কারণে হচ্ছে না সেটা যাদের কাছে টাকা জমা দিয়েছে তারা বলতে পারবে।

মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অবৈধদের বৈধতায় ঘোষিত সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ শেষ হয় গত বছরের ৩০ জুন। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মাই-ইজি, ভুক্তি মেঘা ও ইমান এই তিনটি ভেন্ডরে প্রায় সাড়ে ৫ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি নিবন্ধিত হন। তার মধ্যে ২ লাখ কর্মী ভিসা পেলেও বিভিন্ন কারণে বাদ পড়ে যায় প্রায় সাড়ে ৩ লাখ প্রবাসী।


মালয়েশিয়ায় বৈধভাবে বসবাস করছেন ১২ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন জায়গায় অভিযানে আটক করা হয় প্রায় ৩৫ হাজার অবৈধ অভিবাসীকে। যাচাই-বাছাই শেষে গ্রেফতার করা হয় বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের প্রায় ১০ হাজার অভিবাসীকে।

দেশের অর্থনীতিতে বছরের পর বছর অবদান রেখে যাচ্ছে এসব রেমিটেন্স যোদ্ধারা, দেশের উন্নয়নের মহাশক্তি রেমিটেন্স যেমন দেশের জন্য প্রয়োজন ঠিক তেমনি রেমিটেন্সযোদ্ধাদের সুযোগ সুবিধাও দেখার দায়িত্ব সংশ্লিষ্টদের। বাংলাদেশ দূতাবাসসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে এসব সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসার দাবি প্রবাসীদের।

যুক্তরাষ্ট্রে কুষ্টিয়া জেলা সমিতির নতুন কমিটি

মো. আবু মুসাকে সভাপতি ও মো. আসাদুজ্জামানকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সংগঠন ‘কুষ্টিয়া জেলা সমিতি’।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক সভা থেকে ২০১৯-২০২০ সালের জন্য এ কমিটির ঘোষণা আসে।

সংগঠনের বিদায়ী সভাপতি মো. গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে এ সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান।

সভায় উপস্থিত থেকে আলোচনায় অংশ নেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবু মুসা, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মো. রাশেদুল আলম, মো. রফিক আহম্মেদ মিলু, নাজমুল আহসান দুলাল, মতিউর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মুনসুর আলম মুন্না, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জগলুল হক শাহীন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. মন্জুর কাদের, অর্থ সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন, সহ সভাপতি আনোয়ারা মন্জু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আম্বিয়া অন্তরা, আদিত্য শাহীন, লাইলা খালেদা, প্রচার সম্পাদক মুন্সী সাজেদুর রহমান টেন্টু, সহ ক্রীড়া সম্পাদক নুরুজ্জামান বিশ্বাস, মো. সাইদুর রহমান, মো. জিয়াউর রহমান, মো. মিজানুর রহমান ও আশিক ইকবাল৷

নতুন কার্যকরী কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তারা হলেন- সিনিয়র সহ সভাপতি মো. রাশেদুল আলম, সহ সভাপতি মো. মমিন বিশ্বাস, মো. সাইদুর রহমান, মোছা. রওশন পারভিন, মোছা. আনোয়ারা হক মন্জু এবং মো. কামরুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মো. আসাদুজ্জামান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মুনসুর আলম মুন্না এবং মো. আশরাফুল আলম, সহ সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জগলুল হক শাহীন, কোষাধ্যক্ষ মো. আলমগীর হোসেন, সহ কোষাধ্যক্ষ নাজমুল আহসান, সাংগঠনিক সম্পাদক আদিত্য শাহীন, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জিয়াউর রহমান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সী সাজেদুর রহমান টেন্টু, মহিলা সম্পাদক আম্বিয়া অন্তরা, সাহিত্য সম্পাদক লাইলা খালেদা, দপ্তর সম্পাদক আশিক ইকবাল, প্রচার সম্পাদক আশিক রহমান, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ জোবায়ের, সহ ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. নুরুজ্জামান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. মন্জুর কাদের, আপ্যায়ন সম্পাদক মামুন রশিদ সরোজ।

কার্যকরী সদস্যরা হলেন মো. গিয়াস উদ্দিন, এ কে এম খোকন, মো. মিজানুর রহমান, মো. জহুরুল ইসলাম, মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, আব্দুল আলিম, মো. মফিজুল ইসলাম শুভ, মো. বুলবুল আহম্মেদ, মো. সাকিম উদ্দিন, মো. জিয়াউর রহমান বাবু, মো. হাসান আলী, মো. রফিকুল ইসলাম ও মো. হুমায়ুন কবির।

সভায় গঠিত উপদেষ্টা পরিষদের প্রধান হয়েছেন মো. মাহাবুব জোয়ার্দার, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্যরা হলেন মোহাম্মদ আসাদুল্লাহ, মুন্সী মোর্তুজা আলী, নাজমুল আহসান দুলাল, আব্দুল খালেক, মো. ইমদাদুল হক, মো. আলতাফ হোসেন, মো. রফিক আহম্মেদ মিলু, মো. মাহবুবুল আলম চাঁদ, মো. আব্দুল আলিম হানিফ, মো. খন্দকার আমিরুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা মো. নাসিম আহম্মেদ, মো. মাসুদুল আলম লিপু, মো. মাফিউল আলম, আব্দুর রহমান ও মো. সাজিজুল ইসলাম সুজন।

বিশ্বে অস্ত্রের সবচেয়ে বড় ক্রেতা সৌদি আরব

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব বিশ্বে অস্ত্রের সবচেয়ে বড় ক্রেতা হিসেবে শীর্ষে রয়েছে। এরপরই রয়েছে ভারত। সুইডেনের স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

এসআইপিআরআই ‘ট্রেন্ডস ইন ইন্টারন্যাশনাল আর্মস ট্র্যান্সফার-২০১৮’ শিরোনামের প্রতিবেদনে জানায়, সৌদি আরব ২০১৪ সালের পর থেকে অস্ত্র আমদানি ব্যাপকভাবে বাড়িয়েছে। গত পাঁচ বছরে দেশটির অস্ত্র আমদানি ১৯২ শতাংশ বেড়েছে।

এছাড়া শীর্ষ ১০ অস্ত্র ক্রেতা দেশের তালিকায় রয়েছে মিশর ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।

ভারতে ফ্লাইওভারে গাড়ি বিস্ফোরণ,দুই মেয়েসহ মায়ের মৃত্যু

ফ্লাইওভারে গাড়ি বিস্ফোরণের ঘটনায় ৩৫ বছর বয়সী এক মা ও তার দুটি কন্যাসন্তানের আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয়েছে। রোববার ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত অক্ষরধাম ফ্লাইওভারে এ ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, একটি ব্যক্তিগত গাড়িতে ফ্লাইওভার দিয়ে যাওয়ার সময় আচমকা গাড়িটি বিস্ফোরিত হলে তারা নিহত হন। নিহত ওই মায়ের নাম রঞ্জনা আর তার দুই মেয়ের একজনের নাম রিধি অপরজন নিক্কি।

এ সময় গাড়িটি চালিয়েছেন নিহত রঞ্জনার স্বামী উপেন্দ্র মিশ্র। গাড়িটি বিস্ফোরণের পর তিনি সামনে থাকা তার ছোট মেয়েকে নিয়ে বের হতে পারলেও বাকিরা গাড়ির ভেতরে মারা যান।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, গাড়িটিতে থাকা গ্যাসের (সিএনজি) বিস্ফোরণের ফলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পরে পেছনের সিট থেকে থাকা তার স্ত্রী ও দুই কন্যার লাশ গাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় নয়াদিল্লির পূর্বাঞ্চলীয় পুলিশের সহকারী কমিশনার জশমিত সিং বলেন, আমরা দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে পরবর্তী তদন্ত শুরু করব। শোকে বিহ্বল নিহত ওই নারীর স্বামী অজ্ঞান।

১৫৭ আরোহী নিয়ে ইথিওপীয় বিমান বিধ্বস্ত

১৫৭ আরোহী নিয়ে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। বিমানটিতে ১৪৯ যাত্রী এবং আটজন ক্রু ছিলেন বলে নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ। ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের একজন মুখপাত্র বলেছেন, স্থানীয় সময় রোববার সকাল ৮টা ৪৪ মিনিটের দিকে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক বার্তায় বিমান বিধ্বস্তে হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। তবে বিমান বিধ্বস্তের এ ঘটনায় ঠিক কতজনের প্রাণহানি ঘটেছে তা নিশ্চিত করা হয়নি।

ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় বলছে, দেশটির রাজধানী আদ্দিসআবাবা থেকে বিমানটি নাইরোবির উদ্দেশে যাত্রা করেছিল। যাত্রার মাঝপথে এটি বিধ্বস্ত হয়।

রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বোয়িং ৭৩৭ বিমানটির বিধ্বস্তের খবর নিশ্চিত করা হয়। ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের ওই মুখপাত্র বলেছেন, ১৪৯ যাত্রী এবং আটজন ক্রু নিয়ে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

কলম্বিয়ায় একটি ডিসি-৩ প্লেন বিধ্বস্ত হয়ে ১৪ জন নিহত

 কলম্বিয়ায় একটি ডিসি-৩ প্লেন বিধ্বস্ত হয়ে ১৪ জন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের শহর তারাইরার মেয়র দরিস ভিয়েগাস, তার স্বামী ও কন্যাও ছিলেন। স্থানীয় সময় শনিবার আন্দিজ পর্বতমালা ও ল ইয়ানস তৃণভূমির সংযোগ এলাকা ভিয়াভিসেন্সিওতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ডগলাস ডিসি-৩ মডেলের যুক্তরাষ্ট্রে নির্মিত দুই ইঞ্জিনের এই প্রপেলার প্লেনটি স্যান হোস দেল গুয়াভিয়ার থেকে ভিয়াভিসেন্সি শহরে যাচ্ছিল।

ভিয়াভিসেন্সির অ্যারোনটিক্যা সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। তারা জানিয়েছে, ডিসি-৩ প্লেনটির একটি ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে গেলে পাইলট জরুরি অবতরণের চেষ্টা করেন। এরপর এটি সংশ্লিষ্ট এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল (এটিসি) টাওয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ হারায়। তারপর আগুন ধরে এটি বিধ্বস্ত হয়ে যায়। এতে সব আরোহী নিহত হয়।

দুর্ঘটনায় সপরিবারে মেয়র ছাড়াও প্রাণ হারিয়েছেন প্লেনের পাইলট ও মালিক হেইমে ক্যারিয়ো, কো-পাইলট হেইমে হেরেরা এবং এয়ারলাইন্স বিশেষজ্ঞ আলেক্স মোরেনো।

মেক্সিকোয় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৫ জন নিহত

 মেক্সিকোয় ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ২৫ জন অভিবাসী​নিহত হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছে আরো ২৯ জন। মেক্সিকোর দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর সিয়াপাসে শুক্রবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মেক্সিকোর অ্যাটর্নি জেনারেলের বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে চীনা সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া।

নিহতরা সবাই মধ্য আমেরিকার অভিবাসী বলে জানা গেছে। মহাসড়কে একটি ট্রাক দ্রুতগতিতে ঘুরতে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

পাকিস্তানের ১৮শ’ নারী কেবিন ক্রু চাকরি হারালেন

 ১৮শ’ কেবিন ক্রুকে ছাঁটাই করেছে পাকিস্তানের সরকারি বিমান সংস্থা ‘পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন’ (পিআইএ)। অতিরিক্ত ওজনের তাদেরকে ছাঁটাই করা হয়েছে বলে জানিয়েছে এয়ারলাইন কর্তৃপক্ষ।

গত ১ জানুয়ারি সংস্থাটির ক্যারিয়ার জেনারেল ম্যানেজার আমির বশির স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ কথা বলা হয়েছে।

আদেশে বলা হয়েছে, প্রতি মাসে পাঁচ পাউন্ড করে ওজন কমাতে হবে কেবিন ক্রুদের। এর ফলে ছয় মাসে যদি ৩০ পাউন্ড কমে তবেই তারা বিমানে দায়িত্ব পালনে সক্ষম হবেন।

সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানায়, ইতোমধ্যেই সকল কেবিন ক্রুদের ওজন পরীক্ষা করে তা প্রকাশ করা হয়েছে। এমনকি এখন থেকে কেবিন ক্রুদের ওজন নিয়মিতভাবেই পরীক্ষা করা হবে এবং তা রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে। এছাড়াও ওজন যাতে বাড়তে না পারে সেজন্য প্রতি মাসে গ্রুমিং সেলেও নিয়ে যাওয়া হবে।

ABOUT US

এটি একটি অনলাইন খবরের তথ্য ভান্ডার। যা কুষ্টিয়াকে সমৃদ্ধ করতে তথ্য নির্দেশ করে।

This is a online news portal.
Which contain directory of enriched kushtia.