বিদেশের খবর

বিদেশের খবর আমার কুষ্টিয়া হতে প্রকাশিত

ভারত-বাংলাদেশ একটি পরিবার : নরেন্দ্র মোদি

ভারত-বাংলাদেশ একটি পরিবার উল্লেখ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, ভৌগোলিক দিক থেকে আমরা (দু-দেশ) প্রতিবেশী দেশ হলেও ভাবনার দিক থেকে আমরা এক পরিবার। একে অপরের সুখ দুঃখে সঙ্গ দেয়া, একে অপরের ভালো কাজে হাত লাগানো একটি পারিবারিক মূল্যবোধ। দুই দেশের এই সম্পর্ক আমাদের পারিবারিক মূল্যবোধেরই অংশ।

মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনটি নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

মোদি বলেন, কয়েক বছরের মধ্যে আমাদের দু-দেশের সম্পর্ক বিশ্বকে নতুন কিছু দেখিয়েছে। বিশ্ব দেখেছে দুই প্রতিবেশী দেশের সম্পর্ক ভালো হলে কত কিছুই না করা সম্ভব। এটা হোক দীর্ঘ সময়, পুরোনো সীমান্ত বিরোধ নিস্পত্তি কিংবা অগ্রগতির জন্য উন্নয়ন প্রকল্পের অংশিদারিত্ব। দুই দেশের মধ্যে অভূতপূর্ব অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। এই অগ্রগতির কৃতিত্ব আপনার (শেখ হাসিনা) নেতৃত্বকে দিতে চাই। এ জন্য আপনাকে অভিনন্দনও জানাই।

তিনি বলেন, কিছু দিনের ব্যবধানে আমরা আবারও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মিলিত হলাম। আমাদের ভিডিও কনফারেন্সের কারণ শুধু প্রযুক্তিগত সহায়তা নয়, এর পেছনে ভারত ও বাংলাদেশে সম্পর্কের অবাধ গতি ও নির্বার প্রগতির বিষয়। আজ ভারত বাংলাদেশের মধ্যে মৈত্রী পাইপলাইনের কাজ শুরু হয়েছে। প্রগতির জন্য দুই দেশের অগ্রগতির মাইলফলক হিসেবে এই মহান কর্মযজ্ঞ যুক্ত হলো। এটা নতুন অধ্যায় করলো।

নির্মিতব্য পাইপলাইন বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের কাছে হস্তান্তর করা হবে জানিয়ে এই বিজেপি নেতা আরও বলেন, যে কোনো দেশের বিকাশের জন্য একটি মহান উদ্যোগ জরুরি। আমি মনে করি- আজকের এই মৈত্রী পাইপলাইনের মহান উদ্যোগ বাংলাদেশে ভবিষ্যৎ লক্ষ্যপূরণে বড় ভূমিকা রাখবে। বিশেষ করে বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে এই পাইপলাইন সস্তা দামে জ্বালানি সরবরাহ করতে সক্ষম হবে। এ ছাড়া বাংলাদেশে অর্থ ব্যবস্থার সঙ্গে আমাদের অর্থ ব্যবস্থার মধ্যেও পাইপলাইন স্থাপন করবে। এই পাইপলাইন ভারতের অনুদানের অর্থ থেকে বানানো হচ্ছে। কিন্তু আমাদের জন্য আশার বিষয় হলো- কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর এই পাইপলাইন বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

ভিডিও কনফারেন্সে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নেয়া যৌথ প্রকল্পগুলো বাংলাদেশকে উন্নয়নের ক্ষেত্রে আরও একধাপ এগিয়ে নেবে। উভয় দেশ মিলে যে কর্মসূচি গ্রহণ করা হচ্ছে, তা দুই দেশের উন্নয়নকে আরও ত্বরান্বিত করবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে এবং পাইপলাইন দিয়ে সরবরাহ চালু হয়ে গেলে জ্বালানির দাম অনেক কমে যাবে।

‘ঢাকা-টঙ্গী ও টঙ্গী-জয়দেবপুর তৃতীয়-চতুর্থ এবং পঞ্চম ডুয়েল-গেজ রেললাইন নির্মাণের কাজ সম্পন্ন হলে এক দিকে যেমন ঢাকার ওপর চাপ কমবে তেমনি যাতায়াতের গতি বাড়বে। এতে ভারত-বাংলাদেশ উভয়েই উপকৃত হবে,’- বলেন তিনি।

বাংলাদেশ সরকারপ্রধান বলেন, প্রকল্পের আওতায় ৯৬ কিলোমিটার রেললাইন নির্মাণ হলে বাংলাদেশের পণ্য যেমন চট্টগ্রাম বন্দর হয়ে ভারতসহ দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় যেতে পারবে তেমনি উত্তরপূর্বে ভারতের রাজ্যগুলোয় সরবরাহ করা যাবে।

আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন দুই প্রধানমন্ত্রী। ভারত-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্প ছাড়া বাকি দুটি হলো- ভারতীয় এলওসির অর্থায়নে বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকা-টঙ্গী সেকশনে তৃতীয় ও চতুর্থ ডুয়েলগেজ লাইন এবং টঙ্গী-জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণ প্রকল্প।

প্রকল্প উদ্বোধনের সময় ভিডিও কনফারেন্সে দু’দেশের প্রধানন্ত্রীর কার্যালয়ে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিতি ছিলেন।

ঢাকা-টঙ্গী সেকশনে তৃতীয় ও চতুর্থ ডুয়েলগেজ লাইন এবং টঙ্গী-জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মিত হলে সমন্বতি ও গতিময় ট্রেন সার্ভিস প্রবর্তনের মাধ্যমে শহরতলী এবং অন্যান্য জেলাগুলোর যাত্রী সাধারণের রাজধানী ঢাকায় স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ ও সময়সাশ্রয়ী যাতায়াত সম্ভব হবে।

প্রকল্পটিতে ভারতীয় এলওসি’র বরাদ্দ ৯০২ কোটি ৬৩ লাখ ৪১ হাজার টাকা। অপরদিকে বাংলাদেশ সরকার খরচ করবে ২০৪ কোটি ১৬ লাখ ৬৭ হাজার টাকা।

যাত্রী সাধারণের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় অধিকসংখ্যক ট্রেন চালু করার লক্ষ্যে ঢাকা-টঙ্গী সেকশনে ক্যাপাসিটি বৃদ্ধি করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। ফলে ঢাকা-টঙ্গী সেকশনে তৃতীয় ও চতুর্থ ডুয়েলগেজ লাইন এবং টঙ্গী-জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েল গেজ ডাবললাইন নির্মাণ প্রকল্পের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।

এ প্রকল্পে নির্মিতব্য অবকাঠামোগুলো রাজধানী ঢাকা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল, টঙ্গী-জয়দেবপুর হয়ে উত্তরাঞ্চল এবং চট্টগ্রাম ও সিলেট রুটে ট্রেন চলাচল অধিকতর স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ ও গতিময় করার ক্ষেত্রে ঢাকা-টঙ্গী-জয়দেবপুর ফিডার সেকশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

ভারতের শিলিগুড়ি হতে বাংলাদেশের পার্বতীপুর পর্যন্ত প্রায় ১৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পাইপলাইনে চলতি বছরের আগস্ট-ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রায় ৫০ হাজার টন ডিজেল ভারত হতে রেল ওয়াগনের মাধ্যমে আমদানি করা হবে আশা করা হচ্ছে।

এর আগে গত ১০ সেপ্টেম্বর ভারত ও বাংলাদেশের দুই প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যৌথভাবে আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েল গেজ রেল লাইন নির্মাণ কাজ, কুলাউড়া-শাহবাজপুর বিভাগের রেলপথের সংস্কার প্রকল্প এবং বাংলাদেশের জাতীয় গ্রিডে ভারত থেকে ভেড়ামারায় নবনির্মিত ৫শ মেগাওয়াট এইচভিডিসি ব্যাক টু ব্যাক কেন্দ্রের দ্বিতীয় বন্টকের উদ্বোধন করেন।

ফিলিপাইনের পর মাংখুটের তাণ্ডব চীন-হংকংয়ে, নিহত ৬৬

প্রলয়ঙ্কারী টাইফুন মাংখুট ফিলিপাইনকে লন্ডভণ্ড করার পর এবার চীন ও হংকংয়ে আঘাত হেনেছে।  চীনের দক্ষিণাঞ্চলে মাংখুটের আঘাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দু’জন নিহত হয়েছেন।  আর ফিলিপাইনে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৪ জনে দাঁড়িয়েছে। 

প্রশান্ত মহাসাগর থেকে উঠে আসা টাইফুন মাংখুট গত কয়েক দশকের মধ্যে এই অঞ্চলে সবচেয়ে শক্তিশালী ঝড়গুলোর মধ্যে অন্যতম। 

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ গুয়ানদংয়ে মাংখুটের আঘাতে দু’জন নিহত হয়েছে।  এছাড়া এর কবল থেকে বাঁচাতে গুয়াংদন এবং হাইনান দ্বীপ থেকে ২৫ লাখের বেশি মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।  রোববার বিকেল নাগাদ এটি চীনের উপকূলে আঘাত হানে। 

এছাড়া সুপার টাইফুন মাংখুটের কবলে পড়ে হংকংয়ের অনেক ভবন ধসে পড়েছে এবং শহরটি প্রায় অচল হয়ে পড়েছে।  প্রধান প্রধান সড়ক বন্ধ, ট্রেন চলাচল স্থগিত এবং ফ্লাইট বাতিলের মধ্যে দিয়ে শহরটির যোগাযোগ ব্যবস্থা পুরো বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। 

এর আগে গত শুক্রবার ফিলিপাইনে আঘাত হানে মাংখুট।  শেষ খবর পাওয়া ফিলিপাইনে ৬৪ জন নিহত হয়েছেন। 

ফিলিপাইনে আঘাত হেনে তাণ্ডব চালিয়ে ৬৪ জনের প্রাণহানি ঘটিয়ে চীনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে আঘাত হানে।  এতে ভূমিধসের ঘটনাও ঘটেছে বলে দেশটির আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে। 

প্রসঙ্গত, প্রলয়ংকারী এ ঘুর্নিঝড়টি প্রশান্ত মহাসাগর থেকে উঠে এসেছে।  বর্তমানে অবস্থান করছে ফিলিপাইন, চীন ও হংকংয়ে।  এ পর্যন্ত ৬৬ জনের প্রাণহানির খবর দিয়েছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যম।  আলজাজিরা জানিয়েছে, এর মধ্যে ফিলিপাইনেই মারা গেছেন ৬৪ জন।  আর চীনে দুজন নিহতের তথ্য দিয়েছে বার্তা সংস্থা থমসন রয়টার্স। 

ম্যাংখুট বর্তমানে চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় এলাকায় অবস্থান করছে বলে জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সিজিটিএন।  সেখানে ১০০ কিলোমিটার গতিবেগে ঘূর্ণিঝড় বইছে। 

চীনের আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, সোমবার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ গুয়াংদং-এ ঘূর্ণিঝড়ের পাশাপাশি ভারি বর্ষণে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।  সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।  লাখ লাখ মানুষকে তাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে নিরাপদে সরে যেতে হয়েছে। 

ভারতের কাশ্মিরে বাস খাদে, ১৭ জনের প্রাণহানি

ভারতের জম্মু-কাশ্মিরে একটি মিনিবাস খাদে পড়ে  অন্তত ১৭ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এতে আহত হয়েছে আরো ১৬ জন। এদের মধ্যে ১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।গতকাল শুক্রবার রাজ্যের কিশতোয়ার জেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন করছিল বাসটি। পাহাড়ি সড়কে মোড় ঘোরার সময় নিয়ন্ত্রণ হারায় বাসচালক। বাসটি পাশের ৩শ’ ফুট গভীর খাদে ছিটকে পড়ে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ ও সেনাবাহিনী। গুরুতর আহতদের সামরিক হেলিকপ্টারে করে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। এদিকে, নিহতদের স্বজনদের ক্ষতিপূরণ হিসেবে পাঁচ লাখ এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার রুপি করে সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে সরকার।

প্রথমবারের মতো এবার বিমান-বালা হচ্ছে সৌদি নারীরা!

সৌদি আরবের নারীদের বিমানের কেবিন ক্রু তথা বিমান-বালা হিসেবে নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করেছে ফ্লাইডিল নামের একটি এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ। অন্তত ২০ জন সৌদি নারী এই চাকরির সুযোগ পাবেন। পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে এটিই হবে সৌদি নারীদের কেবিন ক্রু পদে চাকরির প্রথম উদাহরণ।

মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক সংবাদ পর্যবেক্ষণকারী যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংস্থা মিডিল ইস্ট আই জানিয়েছে, ফ্লাইটডিল নামের বিমান সংস্থাটি সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান সৌদিয়ারই একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।

গত মঙ্গলবার কেবিন ক্রু হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার জন্য অনলাইনে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে ফ্লাইডিল। সেখানে ২৩ থেকে ৩০ বছর বয়সী সৌদি নারীদের আবেদন করার আহ্বান জানানো হয়েছে। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, আগ্রহী প্রার্থীদের ইংরেজিতে সাবলীল এবং গ্রাহক সেবা ও বিপণনে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন হতে হবে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাতে মিডল ইস্ট আই জানিয়েছে, বাছাইয়ে উত্তীর্ণ সৌদি নারীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করবে ফ্লাইডিল।

ফ্লাইডিল প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ২০১৭ সালে। তেল সমৃদ্ধ সৌদি আরব কোনও একটি উৎসের ওপর নির্ভরশীল না থেকে অর্থনীতিকে বহুমুখী করার উদ্দেশ্যে যে সংস্কার পরিকল্পনা করেছে তার সূত্রেই এই অপেক্ষাকৃত সস্তা বিমান সেবার যাত্রা শুরু।

সৌদি আরব চাইছে, তেলের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে পর্যটনের মতো অন্যান্য খাতে উন্নয়ন সাধন করতে। সৌদি পর্যটনের প্রতি মানুষকে আগ্রহী করে তুলতেই সৌদিয়ার অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে ফ্লাইডিল।

সৌদি আরব এতদিন পর্যন্ত  কেবিন ক্রু পদে নারীদের নিয়োগ দেয়নি। ২০১৫ সালে সৌদিয়ার পক্ষ থেকে বরং ঘোষণা দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, এয়ারলাইন্সটির নারী গ্রাহকদের সেবা দেওয়ার জন্য সৌদি আরবের নারীদের নিয়োগ করার সুযোগ থাকলেও সরাসরি কেবিন ক্রু পদে তাদের নিয়োগ দেওয়া হবে না।

বাংলাদেশ হয়ে বুলেট ট্রেন ছুটবে কলকাতা-চীন

চীনের কুমিং প্রদেশ থেকে কলকাতায় বুলেট ট্রেন সার্ভিস চালুর পরিকল্পনা করছে চীন। যে ট্রেনটি চলাচল করবে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার হয়ে। বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে কলকাতায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত মা ঝানউ এ তথ্য জানিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে ঝানউ বলেন, চীন এবং ভারতের যৌথ প্রচেষ্টায় দ্রুত গতির ট্রেন এই ট্রেন সেবা চালু করতে চায় তার দেশ।

তিনি বলেন, যদি এই রেল সেবা চালু করা যায় তাহলে এর ফলে মাত্র কয়েক ঘণ্টায় কুনমিং প্রদেশ থেকে কলকাতায় পৌঁছানো সম্ভব হবে।

তিনি বলেন, এই প্রকল্প থেকে মিয়ানমার এবং বাংলাদেশও যথেষ্ঠ সুবিধা পাবে। তিনি বলেন, এই রুটে আমাদের অনেক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এর ফলে দেশগুলোর মধ্যে অর্থনৈতিক উন্নতির সম্ভাবনা আরও বেড়ে যাবে।

বন্দুকধারীর গুলিতে ক্যালিফোর্নিয়ায় নিহত ৫

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় এক বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত পাঁচজন নিহত হয়েছে। বুধবার রাতে শহরের একাধিক জায়গায় বন্দুক নিয়ে হামলা চালায় ওই বন্দুকধারী। পরে নিজেও আত্মহত্যা করে সে।

মার্কিন গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, হামলাকারীর পরিচয় কিংবা হামলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি।

খবরে বলা হয়েছে, পাঁচজনকে হত্যার পর এক পর্যায়ে নিরাপত্তা রক্ষীরা যখন তাকে ধাওয়া করে, ঠিক তখনই নিজের গুলিতে নিজেকে শেষ করে দেয় সে।

শহরের কার্ন কাউন্টির শেরিফ জানিয়েছেন, প্রত্যক্ষদর্শীদের জেরা করার পাশাপাশি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

খবরে বলা হয়েছে, একজনকে বেশ কিছুক্ষণ তাড়া করার পর গুলি করে হত্যা করে ওই বন্দুকধারী। তাই অনুমান করা হচ্ছে, ব্যক্তিগত আক্রোশের জেরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে সে। তবে এই ঘটনায় সন্ত্রাসবাদীদের কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ৫ সমকামী পুরুষের ১ জন এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর একটি গবেষণায় দেখা গেছে, দেশটির ২১টি বড় শহরে প্রতি ৫ জন সমকামী পুরষের একজনই এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত।

ওই প্রতিষ্ঠানের মার্কিন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, অথচ আক্রান্তদের প্রায় অর্ধেক জানেনই না যে তাদের শরীরে এইচআইভি ভাইরাস রয়েছে।এক্ষেত্রে যুবক ও কৃষ্ণাঙ্গ সমকামী তরুণদের মধ্যে এইচআইভি বিষয়ে অজ্ঞতার প্রবণতা বেশি।

সিডিসি এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ বিভাগের পরিচালক ডা. জোনাথন মারমিন বলেন, ‘সমকামী ও উভকামী পুরুষদের মধ্যে এইচআইভি ভাইরাস প্রতিরোধ করতে আমাদের প্রচেষ্টা নতুন করে শুরু করতে হবে।’ জুলাইয়ে হোয়াইট হাউজ একটি এইডস নীতি গ্রহণ করেছে। ওই নীতিমালায় বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সংস্থাকে এইচআইভি সংক্রমণের হার ২৫ শতাংশ কমাতে উপায় বের করতে বলা হয়েছে।

সিডিসি’র গবেষকরা ২১টি বড় শহরে বসবাসরত ৮,১৫৩ জন সমকামী পুরুষকে পরীক্ষা করেছেন। এদের ২০ শতাংশের মধ্যেই এইচআইভি ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। তবে কৃষ্ণাঙ্গদের মধ্যে এই হার আরও বেশি। ২৮ শতাংশ। হিসপ্যানিক (১৮%) ও শ্বেতাঙ্গদের (১৬%) মধ্যে তুলনামূলকভাবে কম।

গবেষণায় আরও দেখা গেছে, এইচআইভি আক্রান্ত কৃষ্ণাঙ্গ পুরুষদের ৫৯ শতাংশই জানতেন না তারা এই ভাইরাস বহন করছেন। হিসপ্যানিক পুরুষদের ক্ষেত্রে এই হার ৪৬ শতাংশ আর শ্বেতাঙ্গ পুরুষদের মধ্যে ২৬ শতাংশ।

মারমিন বলছেন, আগের মতো মানুষ এখন এইচআইভি সংক্রমণ নিয়ে অত আতঙ্ক বোধ করেন না। এর একটি কারণ হতে পারে এইডস চিকিৎসার কার্যকারিতা। এই রোগ সারানো না গেলেও কিছু ওষুধের মাধ্যমে রোগীদের স্বাস্থ্যবান রাখা সম্ভব। এছাড়া তাদের কাছ থেকে অন্য মানুষের মধ্যে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিও কমানো যায়।

বাস খাদে পড়ে ভারতে শিশুসহ নিহত ৪০

ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যে বাস খাদে পড়ে কমপক্ষে ৪০ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে রয়েছে ৬ জন শিশু। খবর এনডিটিভির। এনডিটিভির ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার সকালে রাজ্যের জাগতিয়াল শহরে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।  ৭০ জন যাত্রী নিয়ে বাসটি জাগতিয়াল শহরের শানিভারাপেট গ্রামে সরু রাস্তা পার হওয়ার সময় খাদে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলে ৪০ জনের মৃত্যু হয়।  তেলেঙ্গানা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্র শেখর রাও নিহতদের প্রত্যেক পরিবারের জন্য ৫ লাখ রুপি ঘোষণা করেছেন।

সাড়ে চার কোটি রুপি পাচ্ছে ভারতে দুর্ঘটনায় নিহত ৪৩ পরিবার

সাড়ে চার কোটি রুপি পাচ্ছে দুর্ঘটনায় নিহত ৪৩ পরিবার । ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যে যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে অন্তত ৪৩ জনের প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার রাজ্যের জাগতিয়াল জেলায় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

জানা গেছে, রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পরিবহনের জাগতিয়ালগামী বাসটি ৫৫ জন যাত্রী নিয়ে শনিভরপেত গ্রামের ঘাট রোডে নিয়ন্ত্রণ হারালে পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে যায় সেটি।

এতে ঘটনাস্থলেই ২৩ জন মারা যান। গুরুতর আহত অবস্থায় ২৫ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো ২০ জনের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় তেলেঙ্গানা রাজ্যের ভারপ্রাপ্ত মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও নিহতদের পরিবারকে ১০ লাখ রুপি এবং আহতদের ফ্রি চিকিৎসার ঘোষণা দিয়েছেন।

জাপানে ভূমিকম্প: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৪

প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপর্যস্ত উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরের দেশ জাপান। টাইফুন ‘জেবির’ পর জাপানের উত্তরাঞ্চলের হোক্কাইডো দ্বীপে গত ৬ সেপ্টেম্বর শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। এ ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৪ এ দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৬৬০ জন।

সোমবার দেশটির সরকার আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, শীর্ষ গাড়ি প্রস্তুতকারক কোম্পানি ‘টয়োটা’র প্রস্তুত কাজ এখনও বন্ধ রয়েছে। এছাড়া এখনও বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রয়েছে।

গত ৬ সেপ্টেম্বর ভোরে উত্তরাঞ্চলীয় দ্বীপ হোক্কাইডোর উত্তরে এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬.৭। উৎপত্তিস্থল ছিল রাজধানী শহর সাপোরোর ৬৮ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে ভূপৃষ্ঠের ৪০ কিলোমিটার গভীরে। সেসময় বন্ধ হয়ে যায় আকাশ ও রেলপথের যোগাযোগ।

দেশটির ফায়ার ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা বলছে, আড়াই হাজারের মতো মানুষ শরণার্থী কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে। ভূমিকম্পের কারণে ব্যাপক ভূমিধসের পাশাপাশি অনেক বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সরকারের মুখপাত্র ইয়শহিহিদে সুগা বলেন, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য, দমকল কর্মী, পুলিশ ও অন্যরা মিলে প্রায় ৪০ হাজারের মতো একটি দল ধ্বংসাবশেষে কাজ করছে। এখন কোনো মানুষ নিখোঁজ নেই।

ফিলিস্তিনিদের চিকিৎসা তহবিল বাতিল কর লেন ট্রাম্প

পূর্ব জেরুজালেমের হাসপাতালগুলোতে ফিলিস্তিনিদের দেয়া চিকিৎসা সহায়তা বাতিলের নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ফিলিস্তিনিদের সুরক্ষার জন্য গড়ে তোলা হাসপাতালগুলোতে দেয়া আড়াই কোটি মার্কিন ডলার বরাদ্দ হাসপাতালের বদলে অন্যকোনো খাতে কাজে লাগানোর নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

ফিলিস্তিনিদের জন্য মার্কিন সহায়তা পুনঃপর্যালোচনার আওতায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে শনিবার জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

এ বছরের শুরুর দিকে ট্রাম্প ফিলিস্তিনিদের জন্য দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ সহায়তা পুনঃপর্যালোচনার নির্দেশ দেন।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় স্বার্থের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ফিলিস্তিনিদেরকে মার্কিন সহায়তা বরাদ্দ করা হচ্ছে কিনা তা নিশ্চিত হতে এ পদক্ষেপ নেন তিনি।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলেন, সহায়তার ক্ষেত্রগুলো পুনঃপর্যালোচনার পর প্রেসিডেন্টের নির্দেশে আমরা পূর্ব জেরুজালেমের হাসপাতাল নেটওয়ার্কের জন্য বরাদ্দ প্রায় আড়াই কোটি মার্কিন ডলার অন্য কোথাও বরাদ্দ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

অন্যান্য জায়গায় সর্বোচ্চ প্রাধান্যের খাতগুলোতে এ তহবিল ব্যয় করা হবে। এ বছর এর আগে আরো দুই দফা ফিলিস্তিনিদের জন্য বরাদ্দ অর্থ সহায়তা হ্রাস বা বাতিলের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

এর মধ্যে জানুয়ারিতে ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের নিয়ে কাজ করা জাতিসংঘের ত্রাণসংস্থা ইউএন রিফিল এন্ড ওয়ার্কস এজেন্সির (ইউএনআরডব্লিউএ) জন্য প্রতিশ্রুত সাড়ে ১২ কোটি ডলার অনুদান হ্রাস করে অর্ধেকে নামিয়ে আনার ঘোষণা দেয় তারা। পরে ওই অনুদান তহবিল পুরোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

দ্বিতীয় দফায় গত মাসে পশ্চিম তীর ও গাজার ফিলিস্তিনিদের সহায়তার জন্য পরিকল্পিত তহবিল থেকে প্রায় ২০ কোটি মার্কিন ডলার হ্রাসের ঘোষণা দেয়া হয়।

সড়ক দুর্ঘটনায় জর্জিয়ার আবখাজিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রধানমন্ত্রী নিহত

জর্জিয়ার বিচ্ছিন্ন আবখাজিয়া প্রজাতন্ত্রের প্রধানমন্ত্রী শনিবার এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সরকার একথা জানিয়েছে। খবর এএফপি’র।

আবখাজিয়ার মন্ত্রীপরিষদের ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে বলা হয়, রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় পশুও ও সুখুমি অঞ্চলের মধ্যকার এক সড়কে দুর্ঘটনায় গেন্নাদি জাগুলিয়া (৭০) প্রাণ হারান। স্থানীয় সরকারের এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে রুশ বার্তা সংস্থা তাসের রিপোর্টে বলা হয়েছে, তার গাড়ির চালক ও নিরাপত্তারক্ষী কেউ আহত হয়নি।

উল্লেখ্য, এক দশক আগে রাশিয়া ও জর্জিয়ার যুদ্ধ শেষে আবখাজিয়ার স্বাধীনতাকে যে কয়টি দেশ স্বীকৃতি দিয়েছে রাশিয়া তার অন্যতম। আবখাজিয়া ও সাউথ ওশেটিয়া জর্জিয়ার ২০ শতাংশ এলাকা নিয়ে দুটি বিচ্ছিন্ন প্রজাতন্ত্র ।

জাপানের হোক্কাইডোতে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯

পানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ হোক্কাইডোতে ৬.৭ মাত্রার ভূমিকম্পের খবর পাওয়া গেছে। এতে অন্তত ৯ জন নিহত হয়েছেন এবং এখন পর্যন্ত ৪০ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাত ৩টা ৮ মিনিটে হোক্কাইডোতে এ ভূমিকম্প হয় বলে জাপানের আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে।

জাপানের গণমাধ্যম জানিয়েছে, ভূমিকম্পের পর ১২০ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। ভূমিকম্পের পর থেকে হোক্কাইডোর প্রায় ত্রিশ লাখ বাড়িতে বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। বিমানবন্দর বন্ধ থাকায় সব ধরনের ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

সরকার পতনের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে শ্রীলঙ্কা

সরকার বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে শ্রীলঙ্কা। সরকার পতনের দাবিতে বুধবার দেশটির কলোম্বোতে হাজার হাজার মানুষ নেমে এসেছে রাজপথে। বিক্ষোভে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসে।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, জনগণকে দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষায় ব্যর্থ হয়েছে ক্ষমতাসীন সিরিসেনা সরকার। রাষ্ট্রীয় দুর্নীতি এবং বিদেশিদের কাছে রাষ্ট্রীয় সম্পদ বিক্রির অভিযোগ তোলা হয়েছে সরকারের বিরুদ্ধে। বেশ কয়েকটি এলাকায় প্ল্যাকার্ড হাতে সরকারের বিরুদ্ধে শ্লোগান দেয় আন্দোলনকারীরা। পরে প্রেসিডেন্ট ভবনের সামনে অবস্থান নেয় তারা।

তিন বছর আগে মাহিন্দা রাজাপাকসেকে হারিয়ে দেশটির ক্ষমতায় আসেন সিরিসেনা। তার জয়ে নতুন সুযোগের প্রত্যাশা করেছিল দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি। তবে দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগে দ্রুত জনপ্রিয়তা হারায় ক্ষমতাসীনরা।

জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প ;নিহত ২

জাপানের উপকূলে টাইফুন ‘জেবি’ আছড়ে পড়ার পর এবার দেশটিতে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে।আজ বৃহস্পতিবার সকালে দেশটির হোক্কাইডো দ্বীপে এই ভূমিকম্প আঘাত হানে।

এতে এখন পর্যন্ত দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। জানা গেছে, উত্তরাঞ্চলীয় দ্বীপ হোক্কাইডোর উত্তরে আজ বৃহস্পতিবার সকালে এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬.৭।

গণমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কারণে ব্যাপক ভূমিধস এবং বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দু’জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। কমপক্ষে ৪০ জন নিখোঁজ রয়েছে।

ইরাকে সরকার বিরোধী সংঘর্ষ: ৬ জনের প্রাণহানি

ইরাকের বাস্রা শহরে নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সরকার বিরোধীদের সংঘর্ষে দুই দিনে প্রাণ গেছে অন্তত ছয় বিক্ষোভকারীর। এই সংঘর্ষে আহত হয়েছে ২২ পুলিশ সদস্যসহ প্রায় ৪০ জন।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, দীর্ঘদিনের বেকারত্ব সমস্যা, পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানির সংকট, বিদ্যুৎ সরবরাহে ঘাটতিসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত শহরের বাসিন্দারা।

অথচ দক্ষিণাঞ্চলীয় বাস্রা, ইরাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। দেশটিতে খনিজ তেলের সবচেয়ে বড় মজুদ, শিয়া মুসলিম অধ্যুষিত এ অঞ্চলেই। তারপরও সরকারি খাতগুলোতে অব্যবস্থাপনা আর দুর্নীতির কারণে কার্যত ভঙ্গুর অঞ্চলটির অর্থনীতি।

এ অবস্থায় মৌলিক অধিকারের দাবিতে সোমবার থেকে রাজপথে বিক্ষুব্ধ জনতা। ভাঙচুর আর সরকারি ভবন ও কার্যালয়ে পেট্রোল বোমাও ছোঁড়ে তারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কঠোর হলে হতাহত হয় অনেকে।

এদিকে, এই সংকট সমাধানে চেষ্টা চলছে বলে বিবৃতি দিয়েছে ইরাক সরকার।

টাইফুন জেবির আঘাতে জাপানে ১০ জনের প্রাণহানি

জাপানের পশ্চিমাঞ্চলে শক্তিশালী টাইফুন জেবির আঘাতে অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এতে আরও অন্তত ৩০০ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে দেশটিতে আঘাত হানা ‘জেবি’ নামের এ টাইফুন ২৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ঝড় বলে দাবি করা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে বলছে, ‘জেবি’র আঘাতে দেশটির পশ্চিমাঞ্চলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কিয়োটো ও ওসাকা শহরের অধিকাংশ অঞ্চল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত ১০ লাখের বেশি মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে তালিকা করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এছাড়া দেশটির অসংখ্য ফ্লাইট, ট্রেন ও ফেরি চলাচল বাতিল করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যম বলছে, ওসাকার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আটকে পড়েছেন হাজারও যাত্রী। টাইফুন ‘জেবি’র কারণে বন্যা ও ভূমিধসের সতকর্তা জারি করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

মৌসুমের ২১তম সামুদ্রিক এ ঝড়ের বিষয়ে জাপানের আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, টাইফুনের আঘাতস্থলে যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিঘ্ন ঘটছে। এরইমধ্যে ওসাকা ও হিরোশিমার মধ্যে লোকাল এবং উচ্চগতির ট্রেন সার্ভিস বাতিল করা হয়েছে। সীমিত করা হয়েছে টোকিও থেকে ওসাকার মধ্যকার ট্রেন সার্ভিস। আর বাতিল করা হয়েছে প্রায় ৫০০ ফ্লাইট।

জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে। পূর্বনির্ধারিত সফর বাতিল করেছেন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে।

চলতি গ্রীষ্মে ব্যাপক বৃষ্টিপাত, ভূমিধস, বন্যা ও অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাওয়া গরমে কয়েকশত লোক মারা যাওয়ার পর এবার শক্তিশালী টাইফুনের কবলে পড়ল জাপান।

যে যে ক্ষেত্রে পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ

গত ২৫ জুলাইয়ের জাতীয় নির্বাচনে পাকিস্তানের ক্ষমতায় এসেছে দেশটির সাবেক তারকা ক্রিকেটার ইমরান খানের দল পিটিআই। ক্ষমতায় আসার পরপরই তার দলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে- দুনিয়ার শীর্ষ উন্নত দেশ সুইডেনের মডেলে উন্নয়ন ঘটাবেন তিনি পাকিস্তানের। এমন দাবির জবাবে সম্প্রতি পাকিস্তানের ক্যাপিটাল টিভির আওয়াম নামের টক শোতে ইমরানকে দেশের উন্নয়নের জন্য সুইডেন বাদ দিয়ে আগে বাংলাদেশকে অনুসরণের পরামর্শ দেওয়া হয়।

এই পরামর্শ দেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট জাইঘাম খান। উর্দু ভাষার ওই টিভি শো’র ভিডিও ক্লিপ এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার ঝড় তুলেছে। এতে দেখা যায় জাইঘাম খান বাংলাদেশের উন্নয়নের ব্যাপক প্রশংসা করেন। আসুন জেনে নেয়া যাক পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশের অগ্রগতির খতিয়ান।

১. বাংলাদেশের স্টক এক্সচেঞ্জে বছরে ৩০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার লেনদেন হয়, যেখানে পাকিস্তানে হয় মাত্র ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আবার বাংলাদেশ বছরে রপ্তানি খাতে আয় করে ৪০ বিলিয়ন ডলার, যেখানে পাকিস্তানের আয় মাত্র ২২ বিলিয়ন ডলার।

২. বর্তমানে একজন বাংলাদেশী ৭২ বছর বাঁচার আশা করতেই পারেন, যেখানে পাকিস্তানিদের গড় আয়ু মাত্র ৬৬। ভারতীয়দের গড় আয়ুও বাংলাদেশীদের চেয়ে কম, মাত্র ৬৮। নারীদের গড় ইনকামের দিক থেকেও বাংলাদেশ অনেকটাই এগিয়ে পাকিস্তানের চেয়ে। আর ভারতীয়দের চেয়েও সামান্য ব্যবধানে আমাদের দেশের নারীরা এগিয়ে। এর প্রধান কারণ হলো বাংলাদেশে তৈরী পোশাক শিল্পের প্রভূত উন্নতি। আর এই শিল্পটি তো মূলত নারীদের কল্যাণেই টিকে রয়েছে।

৩. শিশু পুষ্টির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ শুধু পাকিস্তান বা ভারতই নয়, গোটা দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যেই সেরা। অনূর্ধ্ব পাঁচ বছর বয়সী শিশুদের পুষ্টিকর খাদ্য লাভের হার বাংলাদেশে ৩৬.১%, যা কিনা পাকিস্তান, ভারতসহ অধিকাংশ তৃতীয় বিশ্বের দেশসমূহের চেয়েই অনেক ভালো। বাংলাদেশ যে শুধু শিশু পুষ্টির দিক থেকেই এগিয়ে তা নয়, পরিসংখ্যান মোতাবেক বাংলাদেশ শিশু মৃত্যুর দিক থেকেও ভারতের চেয়ে সিকিভাগ এগিয়ে, আর পাকিস্তানের চেয়ে পুরো ৫০% এগিয়ে। বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতি হাজারে মাত্র ৩৭.৬ জন শিশুর মৃত্যু হয়।

৪. চাকরির স্থায়িত্বের দিক থেকেও বাংলাদেশের অবস্থান এই অঞ্চলের অন্য যেকোনো দেশের চেয়ে ভালো। এদেশের কর্মজীবী মানুষের মধ্যে ৫৭.৮% স্থায়ী চাকরি করে থাকে, যা পাকিস্তানের চেয়ে অনেক বেশি। আর সেখানে ভারতের অবস্থা তো খুবই খারাপ। সেখানে ৮০% কর্মজীবী মানুষেরই স্থায়ী কোনো চাকরি নেই, অর্থাৎ আজ তারা যে কাজ করছে, কালও সেখানে কাজ করতে পারবে কি পারবে না তার কোনোই গ্যারান্টি নেই।

৫. প্রযুক্তিনির্ভর ব্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের উন্নতি বিশেষভাবে লক্ষণীয়। বাংলাদেশের প্রাপ্তবয়স্ক জনগণ, যাদের ব্যাংক একাউন্ট রয়েছে, তাদের ৩৪.১%-ই ২০১৭ সালে অনলাইনের মাধ্যমে ডিজিটাল ট্রানজাকশন করেছে। সেখানে গোটা দক্ষিণ এশিয়াতেই গড় ডিজিটাল ট্রানজাকশনের হার হলো ২৭.৮%। এছাড়া বাংলাদেশী ব্যাংক একাউন্টগুলোর মধ্যে মাত্র ১০.৪% গত বছর ‘সুপ্ত’ অবস্থায় ছিল অর্থাৎ সেগুলোতে গত বছর কোনো টাকা যেমন জমা করা হয়নি, তেমনি সেখান থেকে কোনো টাকা তোলাও হয়নি। এই পরিসংখ্যানটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ ভারতে গতবছর বিশেষ কিছু অর্থনৈতিক রদবদলের পরও, ৪৮% ব্যাংক একাউন্টই পুরোপুরি নিষ্ক্রিয় ছিল।

৬. শিক্ষা আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ খাত যেখানে বাংলাদেশ পাকিস্তানের চেয়ে অনেক বেশি এগিয়ে গেছে। বর্তমানে বাংলাদেশে সাক্ষরতার হার ৭১% হলেও, পাকিস্তানে তা মাত্র ৫৫%।

৭. ২০০৬ সালের পর থেকে বাংলাদেশের জিডিপির অগ্রগতি পাকিস্তানের চেয়ে প্রতি বছরে ২.৫ শতাংশ বেশি। চলতি বছরেই বাংলাদেশের জিডিপি ভারতকে ছাড়িয়ে যাবে। এছাড়া বর্তমানে বাংলাদেশে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার মাত্র ১.১%, যা পাকিস্তানের ২% এর থেকে অনেক কম। ফলে প্রতি বছরই বাংলাদেশের পার ক্যাপিটা ইনকাম পাকিস্তানের চেয়ে ৩.৩% বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ ধারা অব্যহত থাকলে, ২০২০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের মানুষের পার ক্যাপিটা ইনকাম পাকিস্তানিদের চেয়ে বেশি থাকবে।

কে হচ্ছেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট: জানা যাবে আজ

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী সংসদ সদস্যরা ভোট দিয়ে আজ মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করবেন। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক দৌড়ঝাঁপ করেছে দলগুলো।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) প্রার্থী ড. আরিফ আলভি, পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) প্রার্থী এজাজ আহসান ও পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএলএন) এবং জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের (জেইউআই-এফ) এর প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান।

একাধিক প্রার্থী হওয়ায় পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) তাদের প্রার্থী ড. আরিফ আলভি হেসেখেলে প্রেসিডেন্ট পদে বিজয়ী করে আনতে পারবে। এ বিষয়টি শেষ মুহূর্তে মাথায় এসেছে পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলোর মধ্যে। ফলে তারা আবার একক প্রার্থী নির্ধারণের জন্য কোমর বেঁধে মাঠে নামে।

পিএমএলএন নেতারা পিপিপির নেতৃত্বের কাছে আহ্বান জানিয়েছে, তাদের প্রার্থী এজাজ আহসানকে প্রত্যাহার করে নিতে। একই সঙ্গে আহ্বান জানিয়েছে বিরোধীদলীয় প্রার্থী হিসেবে মাওলানা ফজলুর রহমানকে সমর্থন দিতে।

লিবিয়ায় বাংলাদেশী দূতাবাসের জরুরী বিজ্ঞপ্তি

 ত্রিপলীর সাম্প্রতিক যুদ্ধ পরিস্থিতির কারণে লিবিয়ার সরকার State of Alert ঘোষণা করেছে বলে এক জরুরী বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে লিবিয়ায় বাংলাদেশী দূতাবাস।

এ প্রেক্ষাপটে স্ব-স্ব নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে এবং যে কোন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে ত্রিপলীস্থ সকল প্রবাসী বাংলাদেশীকে রাস্তাঘাটে চলাফেরা সীমিত করে যথাসম্ভব সাবধানতা অবলম্বন ও সতর্কভাবে বাসায় অবস্থান করার জন্য দূতাবাসের পক্ষ থেকে পরামর্শ প্রদান করা হলো। বিশেষকরে ত্রিপলীর গাছর-বেন-গাসির, ওয়াদি রাবিয়া, সালাহউদ্দিন, আইনজারা, হাদবা মাসরুউয়া, এয়ারপোর্ট রোড, ক্রিমিয়া এবং আবুসেলিমসহ অন্যান্য যুদ্ধ কবলিত এলাকাসমূহ পরিহার করার জন্য আহবান জানানো হলো।

এছাড়াও লিবিয়াস্থ প্রবাসীবৃন্দকে যেকোন জরুরী প্রয়োজনে দূতাবাসের হটলাইন নাম্বার +২১৮৯১৬৯৯৪২০৭ এ যোগাযোগ করতে বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

জমি থেকে ১৪ জন নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার

কলকাতার হরিদেবপুরের একটি জমি থেকে উদ্ধার করা হলো ১৪ জন সদ্যোজাতের মরদেহ। প্ল্যাস্টিকের ব্যাগে করে ফেলে রাখা ছিল মরদেহগুলো।

জানা গেছে, ওই জমিটি এখন একটি নির্মাণ সংস্থার অধীনে। তারা আজ রবিবার জমিটি পরিষ্কার করার কাজ শুরু করতে গেলে উদ্ধার হয় দেহগুলো।

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, অবৈধ গর্ভপাত হয় এমন কোনো চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান শিশুগুলোর দেহ ফেলে রেখে গেছে। এমন ঘটনার কথা জানতে পেরে ঘটনাস্থলে যান কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার।

হরিদেবপুরের ওই এলাকায় নিরাপত্তার অভাব রয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের। রাত নেমে এলেই এলাকার দখল চলে যায় সমাজ বিরোধীদের হাতে।

টিন দিয়ে ঘেরা ওই জমির ভেতরেই ঢুকে পড়ে অনেকে। গভীর রাত পর্যন্ত চলে মদের আসর। ওই এলাকায় আলোও কম রয়েছে। এসবের সুযোগ নিয়ে মরদেহ ফেলে গেছে অজ্ঞাত কেউ।

ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়র জনান, কাউন্সিলর সোমা চক্রবর্তীর কাছ থেকে খবর পাই। এখন পর্যন্ত ১৪ জনের মরদেহ উদ্ধার কার হয়েছে। জঙ্গলটি পরিষ্কার করে দেখা হবে ভেতরে আর কোনো মরদেহ আছে কিনা।

অন্যদিকে পুলিশ বলছে, আশপাশে কয়েকটি বাড়িতে সিসিটিভি ক্যামেরা আছে। সেগুলোর ফুটেজ দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়া দেহগুলোর মধ্যে কয়েকটি পচে গেছে। কয়েকটির সূত্র ধরে তদন্ত শুরু হলেও কারা ওই দেহ ফেলে রেখে গেছে তা জানা যায়নি।