হোটেলে অভিনেত্রীর অস্বভাবিক মৃত্যু

অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে কলকাতার বাংলা সিনেমার অভিনেত্রী পায়েল চক্রবর্তীর। পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ির একটি হোটেলের ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর ঝুলন্ত লাশ। পরেই হোটেল রেজিস্ট্রারে দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই পায়েলের যাদবপুরের বাসায় যোগাযোগ করা হয়। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। তবে প্রাথমিক ভাবে এটি আত্মহত্যার ঘটনা বলেই মনে করছে পুলিশ।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কলকাতা থেকে শিলিগুড়ির চার্চ রোডের হোটেলের ২১৩ রুমে উঠেছিলেন পায়েল। হোটেলে প্রবেশের পরই হোটেল কর্তৃপক্ষকে জানান রাতের খাবারের প্রয়োজন নেই। পরদিন তিনি গ্যংটক ঘুরতে যাবেন। এবং বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া তাঁকে যেন ডাকা না হয়। কিন্তু বুধবার সকালে হোটেলের রুম সার্ভিসের কর্মীরা পায়েলের ঘরের দরজায় শব্দ করে তার কোন সাড়া পাননি। এরপর হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা যায় সন্ধ্যার পর হোটেল থেকে একবারও বাইরে বের হননি। এরপরই বেলা ১২টার দিকে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে ঘরের দরজা ভেঙে পায়েলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। এরপর লাশটিকে ময়নাতদন্তের জন্য শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এই মুহুর্তে টালিগঞ্জের ব্যস্ততম অভিনেত্রীদের একজন পায়েল। বেশ কয়েকটি সিনেমা এবং টিভি সিরিয়ালে কাজ করেছেন তিনি। সম্প্রতি ‘কেলো’ ও ‘চতুর্থ রিপু’ নামে দুইটি সিনেমায় অভিনয় করছিলেন তিনি। আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর ‘কেলো’ সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কথা। পায়েলের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে টালিগঞ্জ স্টুডিওপাড়ায়। পায়েলের মৃতুত্যে শোকাহত তাঁর সহকর্মীরাও।

মন্তব্য